29 C
Kolkata
Sunday, May 16, 2021

Bizarre! নিজের প্রাপ্তবয়ষ্ক সন্তানকেই বিয়ে করতে চেয়ে আদালতের দ্বারস্থ হলেন বাবা-মা!

Must read

#নিউইয়র্ক: নিউ ইয়র্কের একজন পিতা-মাতা তাঁদের নিজস্ব প্রাপ্তবয়স্ক শিশুকে বিয়ে করার জন্য আইনি আবেদন করেছেন এবং এটিকে “স্বতন্ত্র স্বায়ত্তশাসন” বলে অভিহিত করেছেন। অভিভাবকরাও চান যে, বেআইনি অভ্যাসটি বাতিল করা উচিত । নিউইয়র্ক পোস্টের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পিতা-মাতা অনামী থাকতে চান, তাঁদের পরিচয় প্রকাশ্যে আনতে চাননি উক্ত পিতামাতা বা তাঁদের সন্তান । কারণ তাঁদের অনুরোধটি হ’ল নৈতিক, জৈবিক এবং সামাজিকভাবে অস্বীকৃত বলে বিবেচিত হবে। আদালতের কাগজপত্রগুলি পিতামাতা বা প্রাপ্তবয়স্ক সন্তানের একটি অত্যন্ত অস্পষ্ট বর্ণনা দেয় এবং কোনও লিঙ্গ, আদি শহর বা অন্যান্য বিবরণ প্রকাশ করা হয়নি।

আদালতে ওই পিতামাতারা যুক্তি দিয়েছিলেন যে বিবাহ, দু’টি মানুষের মধ্যে একটি বন্ধন, দু’টি ব্যক্তির মধ্যে ঘনিষ্ঠতা এবং আধ্যাত্মিকতার বৃহত্তর প্রকাশ হিসাবে দেখা যায়।

প্রস্তাবিত সন্তান প্রাপ্তবয়স্ক এবং জৈবিকভাবে তাঁদের মধ্যে পিতামাতা এবং সন্তানের সম্পর্ক রয়েছে এবং আদালতের কাগজপত্র অনুসারে, “যুগলে একসঙ্গে বাচ্চা রাখতে অক্ষম।’’

নিউ ইয়র্কের আইন অনুসারে, অতি নিকট আত্মীয়ের মধ্যে যৌন সঙ্গম একটি তৃতীয় ডিগ্রি অপরাধ এবং চার বছরের কারাদন্ড হতে পারে। যে বাবা-মা তাঁদের নিজের সন্তানের সঙ্গেই বিয়ে করতে চান, তাঁরা বলেছিলেন যে, তাঁরা প্রস্তাব দিতে চান তবে আইন অক্ষত থাকাকালীন তাঁরা যদি তা করে তবে সেটা তাঁদের মানসিক ক্ষতির কারণ হতে পারে।

কিছুদিন আগেই চিনের ঝিয়াংসু প্রদেশে এমনই আজব একটি ঘটনা ঘটেছি । ছেলের বিয়েতে গিয়ে মা দেখতে পেলেন, হবু বৌমা আসলে বহু বছর আগে তাঁর হারিয়ে যাওয়া মেয়ে । মেয়ের হাতের একটি জন্মদাগ দেখে তাঁকে চিনতে পারেন তিনি । পাত্রীর বর্তমান বাবা-মায়ের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারেন, ওই মেয়েকে রাস্তার পাশে কুড়িয়ে পেয়েছিলেন ওই দম্পতি । তারপর থেকে তাকে নিজের মেয়ের মতো করেই বড় করে তুলেছেন তাঁরা । ভাইবোনের বিয়ে অসম্ভব হলেও, এ ক্ষেত্রে তা সম্ভব হয়েছিল । কারণ মেয়েকে হারিয়ে ওই দম্পতিও ছেলেকে দত্তক নিয়েছিলেন । ফলে পাত্রপাত্রী সম্পর্কে ভাইবোন হলেও তাঁদের মধ্যে রক্তের কোনও সম্পর্ক ছিল না ।



Source

- Advertisement -spot_img

More articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest article