A minor girl allegedly raped by a BJP worker | Sangbad Pratidin

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: ফের প্রতিবেশীর বিকৃত লালসার শিকার বাংলার নাবালিকা। এবার ঘটনাস্থল কালনার সুভাষপল্লি। অভিযোগ, ফোনে চার্জ দেওয়ার নামে ডেকে নিয়ে গিয়ে ওই নাবালিকাকে ধর্ষণ করে বিজেপি কর্মী হিসেবে পরিচিত এলাকারই এক যুবক। তবে অভিযুক্ত যুবক বিজেপি (BJP) নয়, তৃণমূল কর্মী বলেই দাবি গেরুয়া শিবিরের।

জানা গিয়েছে, কালনার (Kalna) পূর্ব সাতগাছিয়া পঞ্চায়েতের সুভাষপল্লির বাসিন্দা নির্যাতিতা। বুধবার রাতে কীর্তনের আসর বসেছিল তার বাড়ির কাছেই। সেখানেই ছিল সে। অভিযোগ, এলাকারই এক যুবক সুব্রত হালদার ফোনে চার্জ দেওয়ার অছিলায় নাবালিকাকে সেখান থেকে ডাকে। এরপর জোর করে তাকে নিয়ে যায় পরিত্যক্ত টিনের একটি ঘরে। সেখানেই ধর্ষণ করা হয় নাবালিকাকে। রাতে বাড়ি ফিরে নির্যাতিতা গোটা ঘটনাটি জানালেই পুলিশের দ্বারস্থ হওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় পরিবার। অভিযোগ দায়ের করা হলে ইতিমধ্যেই শারীরিক পরীক্ষা করা হয়েছে নাবালিকার। আদালতে তার গোপন জবানবন্দিও নেওয়া হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: রামপুরহাটের পর সাঁইথিয়া, দলের আগেই ফের প্রার্থীর নাম ঘোষণা অনুব্রতর]

নৃশংস এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়েছে কালনায়। বুধবার রাতেই হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে তৃণমূল-বিজেপি দু’পক্ষ। কারণ, নির্যাতিতার পরিবার ও স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি অভিযুক্ত সুব্রত বিজেপির সক্রিয় কর্মী। কিন্তু একথা মানতে নারাজ গেরুয়া শিবির। তাঁদের পালটা দাবি, অভিযুক্ত শাসকদলের কর্মী। জানা গিয়েছে, নির্যাতিতা ও তার পরিবারের সঙ্গে দেখা করবে বিজেপি ও তৃণমূলের প্রতিনিধি দল। এই ঘটনা প্রসঙ্গে রাজ্যের তৃণমূলের মুখপাত্র দেবু টুডু বলেন, ” অভিযুক্ত যুবক বিজেপির কর্মী। ন্যায় বিচার হবেই। অভিযুক্ত শাস্তি পাবেই।”

[আরও পড়ুন: পুরোহিত ভাতাতেও দুর্নীতি! প্রাপকদের তালিকায় নাম অব্রাহ্মণদের, ক্ষোভ তেহট্টে]

Leave a Comment

%d bloggers like this: