স্বাস্থ্যবিধিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে চলছে উদ্দাম চটুল নাচ, ফাঁস করল Kolkata24X7 – Sangbad | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal’s Leading online Newspaper

শঙ্কর দাস, বালুরঘাট: কিসের বিধি নিষেধ। কোথায়ই প্রশাসনের নজদারী। অন্ধকার নামতেই সেসব যেন উবে যাচ্ছে। শুরু হচ্ছে উদ্দাম চটুল নাচ। বসছে জুয়ার আসর। চটুল নাঁচের মোহে আর জুয়ার নেশায় কয়েকশো মানুষের ভিড় জমছে। করোনা অতিমারী প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে এমনটাই হয়ে আসছে দক্ষিণ দিনাজপুরের তপন থানা এলাকায়।

প্রত্যেক বছরের মতো এবারেও শীত পড়তেই শুরু হয়েছে তপনের বিভিন্ন এলাকায় আলকাপ যাত্রার আড়ালে অশ্লীল চটুল নাচের আসর। রীতিমতো পাঁচশো থেকে হাজার টাকার টিকিটের বিনিময়ে এই আসরে ভিড় জমাচ্ছেন অল্প বয়সী ও বয়স্করা। একই সাথে চলে জুয়ার আসরও।

শনিবার রাতে এমনই এক আসর বসেছিল আউটিনা পঞ্চায়েতের কাঁঠালপুকুর এলাকায়। সাধারণের চোখে ধুলো দিতে শুরুতে আলকাপ যাত্রা চলে। কিন্তু রাত গভীর হতেই সব পাল্টে গিয়ে কান ফাটানো ডিজের গানের সঙ্গে শুরু হয় স্বল্পবাস মহিলাদের চটুল নাঁচ। সন্ধ্যে থেকেই বসে ফরঘুটি ও তাসের আসর। থাকে মদের ঠেকও।

করোনা সংক্রমণের বাড়ন্তের মাঝে এলাকায় এসব চলায় স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয়দের একাংশের অভিযোগ এলাকার প্রভাবশালীদের প্রচ্ছন্ন মদতেই এগুলি তাঁদের এলাকায় চলছে। যে কারণে ভোররাত অবধি এসব চললেও পুলিশ তা বন্ধের সাহস দেখাতে পারে না। এমনটাই অভিযোগ একাংশের।

এলাকার সাংসদ বিজেপির ডঃ সুকান্ত মজুমদার এই বিষয়ে অভিযোগ করে বলেন শুধু আউটিনা এলাকাতেই নয়। প্রতিদিনই তপনের কোথাও না কোথাও এসব অশ্লীল কারবার চলছে। শাসকদলের স্থানীয় প্রভাবশালীরা এসবের সাথে যুক্ত রয়েছেন বলেও তিনি অভিযোগ করেছেন। সরকারী চাকরি ও কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা নেই।

এই পরিস্থিতিতে যুবসমাজকে যৌনতার সুড়সুড়ি ও মদজুয়ায় আসক্ত করে রাখার চক্রান্ত এটা। প্রশাসনের উচিত কঠোর হাতে অবিলম্বে এসব বন্ধ করা। নইলে শুধুই সামাজিক অবক্ষয়ই নয়। করোনা সংক্রমণও আরও ভয়ংকর আঁকার নিবে বলেও সাংসদ জানিয়েছেন।

জেলা তৃণমূলের কোঅর্ডিনেটর তথা বিশিষ্ট আইনজীবী সুভাষ চাকী জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের শুরু থেকেই নির্দেশ রয়েছে যে স্বাস্থ্য বিধি লঙ্ঘন বা বিনা অনুমতিতে কোথাও কোনো জমায়েত ও অনুষ্ঠান করা যাবে না।

সেক্ষেত্রে তপনের কোথাও যদি এই ধরণের ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে অবশ্যই প্রশাসন তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। অশ্লীল অসামাজিক ও বেআইনি এইসবের সাথে যেই জড়িত থাকুন না কেন তাঁকে কোন ভাবেই রেয়াত করা হবে না বলেও তৃণমূল নেতা জানিয়েছেন।

জেলার পুলিশ সুপার দেবর্ষী দত্ত জানিয়েছেন যে ঘটনার খবর নিয়ে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব ‘দশভূজা’য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।

Leave a Comment

%d bloggers like this: