31 C
Kolkata
Friday, May 7, 2021

মমতা,স্ট্যালিন,বিজযনদের এড়াতেই সর্বভারতীয় চ্যানেলগুলির ফলাফল সম্প্রচার বন্ধের কৌশল – Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal’s Leading online Newspaper

Must read

নোম্যাডল্যান্ড এর পরিচালক ক্লোই ঝাও এর অস্কার জয়ের খবর তাঁর মাতৃভূমি চিনের লোকজন জানতে পারেনি| প্রথম এশীয় মহিলা হিসেবে যিনি অস্কার এর মঞ্চকে আলো করে রাখলেন, তাঁর কৃতিত্বের কথা কমিউনিস্ট শাসিত চিনের মানুষ রা জানতে পারেনি| কারণ ক্লোই ঝাও চিনের বর্তমান শাসন ব্যবস্থার কট্টর সমালোচক|

বিজেপি সরকারের তাঁবেদার এবং আজ্ঞাবহ চ্যানেলগুলিকেও কি নির্দেশ দেওয়া হয়েছে রবিবার চার রাজ্যের ফলাফলে গেরুয়া শিবিরের পর্যুদস্ত হওয়ার খবর সম্প্রচার না করার জন্য? শনিবার আচমকাই টাইমস নাও রবিবারের ফলাফল এবং তার কভারেজ প্রচার না করার সিদ্ধান্ত ঘোষনার পরেই এই নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে|

টাইমস নাও যদিও কারণ হিসেবে কোভিড যে রকম জাতীয় বিপর্যয়ের চেহারা নিয়েছে, সেই পরিপ্রেক্ষিতে নির্বাচনী ফলাফলের কভারেজ বন্ধ রাখার কথা টুইট করে বলেছে, কিন্তু তাতেও সংশয় এবং সন্দেহ কাটছে না!

এই টাইমস নাও এর মতো সর্বভারতীয় চ্যানেল ই তো দিল্লিতে যখন অক্সিজেন এর অভাবে মানুষ ধুঁকছিল, তখন পশ্চিমবঙ্গের অলিতে গলিতে বিজেপি র সর্বভারতীয় নেতাদের রোড শো কভার করছিল|

তখন তাদের খেয়াল ছিল না কোভিড পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে? মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যখন চিৎকার করে ভোটের দফা কমাতে কিংবা বাইরের লোক ঢুকে পশ্চিমবঙ্গে কোভিড ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছিলেন, তখন তো এই সর্বভারতীয় চ্যানেলগুলি তৃণমূল নেত্রীকে নিয়ে উপহাস করেছিল| তাহলে হঠাৎ এই বিলম্বিত বোধোদয়ের কারণ?

আমাদের মাথায় রাখতে হবে রবিবার যে সব রাজ্যে বিধানসভার ফলাফল ঘোষিত হবে, তার মধ্যে কোনোটিতেই গেরুয়া শিবিরের ভাল করার সম্ভাবনা নেই| তামিলনাড়ুতে বিজেপি র জোটসঙ্গী এআইএডিএমকে হারছে এবং কট্টর মোদী বিরোধী বলে পরিচিত ডিএমকে নেতা স্ট্যালিন মুখ্যমন্ত্রীর কুর্সিতে ফিরছেন|

কেরল, যেখানে সাম্প্রদায়িক বিভাজনের চূড়ান্ত চেষ্টা করেও, ডাক্তারির ছাত্রছাত্রী রা নাচের ভিডিও করলে সেখানেও হিন্দু মুসলিম বিভাজনের মরিয়া প্রয়াসের পরেও পদ্মফুল ফুটছে না| তাই পিন্নারাই বিজয়নের দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় ফেরা বা চেন্নাইতে ডিএমকে সমর্থকদের উল্লাস দেখতে বিজেপি র কেন্দ্রীয় নেতাদের ভাল লাগবে না|

একইভাবে ভাল লাগবে না টাইমস নাও বা কেন্দ্রের শাসক দলের চাটুকার বলে পরিচিত অন্য চ্যানেলগুলির কর্তাদেরও| গেরুয়া শিবিরের মন রাখতে টাইমস নাও, রিপাবলিকের মতোএই চ্যানেলগুলি এতদিন কেরলে লাভ জিহাদ ছাড়া আর কিছু দেখতে পায়নি, বিজয়নের গোটা মন্ত্রিসভাকেই সোনা পাচারের কান্ডে কাঠগড়ায় তুলে গিয়েছ| রবিবার হৃদয়ে অনেক যন্ত্রণা নিয়ে তাদের কেরলে পিনারাই বিজয়নের প্রত্যাবর্তন বা স্ট্যালিনের জয়ের খবর সম্প্রচার করতে হতো| তার থেকে সরে দাঁড়ানোই ভাল!

তার উপরে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের মতো রাজ্য, যেখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ মোটামুটি ডেইলি প্যাসেঞ্জারি করেছেন| যে পশ্চিমবঙ্গ দখলের জন্য প্রধানমন্ত্রী গোটা দেশের করোনা পরিস্থিতির দিকে চোখ দিতে পারেননি বলে অভিযোগ, সেই বাংলায় যদি গেরুয়া পতাকা না ওড়ে, তাহলে কি হবে? মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ক্ষমতায় ফিরলে সেটা বিজেপি নেতৃত্বের জন্য যথেষ্ট অস্বস্তিকর হবে|

এইসব দেখে এবং চিন্তা করেই কি টাইমস নাও এর মতো চ্যানেলগুলির বিলম্বিত বোধোদয়?

লাল-নীল-গেরুয়া…! ‘রঙ’ ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা ‘খাচ্ছে’? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম ‘সংবাদ’!

‘ব্রেকিং’ আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের।

কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে ‘রঙ’ লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে ‘ফেক’ তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই ‘ফ্রি’ নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

Source

- Advertisement -spot_img

More articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest article