‘ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য পাবেন কৃষকরা’, আশ্বাস প্রধানমন্ত্রীর – Sangbad | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal’s Leading online Newspaper

নয়াদিল্লি: আবারও নয়া কৃষি আইনের পক্ষে সওয়াল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর। ‘কেন্দ্রীয় সরকার কৃষকদের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য (এমএসপি) দিতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’’ শুক্রবার বিশ্ব খাদ্য দিবসে কৃষকদের আশ্বস্ত করে এমনই বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কৃষি আইনের সাহায্যে দেশের কৃষিক্ষেত্রে পরিকাঠামোগত একাধিক উন্নয়ন করতে কেন্দ্র বদ্ধপরিকর বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

করোনাকালেই নয়া কৃষি আইন তৈরি করেছে কেন্দ্র। বিরোধীদের অভিযোগ, কৃষি আইনের জেরে কৃষকরা সর্বসান্ত হবেন। কৃষকরা তাঁদের উৎপাদিত ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য (এমএসপি) পাবেন না বলে দাবি বিরোধীদের।

বিজেপি বিরোধী দলগুলির আরও দাবি, সাধারণ মানুষের স্বার্থের কথা না ভেবে কৃষি বিলটি আইনে পরিণত করেছে মোদী সরকার। কৃষি বিল নিয়ে সংসদের দুই কক্ষেই তুমুল হট্টগোল হয়। এমনকী রাজ্যসভায় বিরোধী সাংসদদের প্রতিবাদের ধরনে ক্ষুব্ধ হন অধ্যক্ষ তথা উপ-রাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু। তিনি আট বিরোধী সাংসদকে সাসপেন্ড করেন।

কৃষি আইন নিয়ে দেশজুড়ে কৃষকরা রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। পঢ্জাব, হরিয়ানা, দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, বিহার, মহারাষ্ট্র-সহ একাধিক রাজ্যে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে পথে নেমে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন কৃষকরা।

এছাড়াও বিভিন্ন রাজ্যে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে পথে নেমে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে বিজেপি-বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। কৃষকদের উৎপাদিত ফসল মোদী-শাহরা এবার কর্পোরেটদের হাতে তুলে দেওয়ার ষড়যন্ত্র করেছে বলেও অভিযোগ বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির।

কৃষি বিল নিয়ে অস্বস্তি এনডিএ শিবিরেও। বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট ছেড়ে বেরিয়ে এসেছিল পঞ্জাবের শিরোমণি অকালি দল। এমনকী কৃষি বিলের প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেছেন অকালি দলের হরসিমরত কৌর বাদল। আরও বেশ কয়েকটি শরিক দলও কৃষি বিল নিয়ে প্রশ্ন তোলে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব ‘দশভূজা’য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।

Leave a Comment

%d bloggers like this: