29 C
Kolkata
Sunday, May 16, 2021

তীব্র তাপদাহে পচন ধরেছে আম-লিচুর বাগানে

Must read

রাজশাহীর পুঠিয়ায় চলতি মৌসুমের শুরুতে অনুকূল আবহাওয়ায় আম ও লিচুর বাগানে বিগত বছরের সমপরিমান ফল ধরেছে। তবে সম্প্রতি তীব্র খড়া ও পর্যাপ্ত পরিমান বৃষ্টিপাত না হওয়ায় আম ও লিচু ফলনে ব্যাপক ক্ষতির শঙ্কা করছেন চাষীরা।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছর নতুন ও পুরাতন মিলে প্রায় ৯শ’ হেক্টর জমিতে আম বাগান রয়েছে। গত মৌসুমে এই এলাকায় আমের উৎপাদন লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ৩ হাজার ৫০ মেট্রিক টন এবং উৎপাদন হয়েছে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার মেট্রিক টন আম। এ বছর প্রায় সাড়ে ৩ হাজার মেট্রিক টন আম উৎপাদন হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

অপরদিকে এই এলাকায় নতুন পুরোনো মিলে প্রায় একশ’ হেক্টোর জমিতে লিচুর বাগান রয়েছে। অনুকূল আবহাওয়া থাকায় লিচুতে বাম্পার ফলন আশা করছেন চাষীরা।

বিগত কয়েক বছর থেকে এই অঞ্চলে বৈরি আবহাওয়ার বিরাজ করায় চাষীরা বিভিন্ন ধান-গমসহ ফসল উৎপাদন করে লোকসানের মূখে পড়ছেন। যার কারণে তারা স্বল্প খরচে অধিক লাভের আশায় ফসলী জমিগুলোতে বিভিন্ন প্রজাতির আম ও লিচুর গাছ রোপন করছেন।

স্থানীয় চাষীরা জানান, গত বছর পর্যাপ্ত পরিমান বৃষ্টিপাত হওয়ায় এ বছর বেশীর ভাগ আম ও লিচু বাগানে মুকুল হয়। কিন্তু মৌসুমের শুরু থেকে কোনো বৃষ্টিপাত না হওয়ায় অনেক মুকুল ও কুঁড়ি গুলো শুকিয়ে ঝড়ে যায়। তার উপর এবার মাত্রারিক্ত তাপদাহ হওয়ায় অনেক বাগানে আম ও লিচুতে পচন রোগ দেখা দিয়েছে। তীব্র তাপদাহে লিচুর উপরিভাগের অংশ পুড়ে ও ফেটে যাচ্ছে। চাষীরা ফেটে যাওয়া ও পচন রোধে বিভিন্ন প্রতিরোধক ব্যবহার করেও পর্যাপ্ত সুফল পাচ্ছে না।

উপজেলায় কর্মরত উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান বলেন, “আম-লিচু সাধারনত দু’টি কারণে পচন ধরতে পারে। একটি হচ্ছে ইটভাটার বিষাক্ত কালো ধোয়ার কারণে বিভিন্ন ফসলের ক্ষতি হচ্ছে। অপরটি হলো আম ও লিচু ছিদ্রকারী মাছি পোকার কারণে হতে পারে। আর সূর্যের তাপ রোধে লিচুর গাছে নেট বা জাল ব্যবহার করে  অনেক অংশে প্রতিরোধ করা যেতে পারে।”

বাগান মালিক মোজাম্মেল হোসেন বলেন, “এবার বৃষ্টিপাত হয়নি। তার উপর এখন অনেক তাপমাত্রা বেড়ে গেছে। এতে আম ও লিচুর ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। যার কারণে এবার ব্যবসায়ীরা আগাম আম ও লিচুর বাগান কিনতে আগ্রহী হচ্ছে না।”

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শামসুনাহার ভূইয়া বলেন, “বৈরি আবহাওয়ার কারণে মৌসুমের শুরু থেকে এই অঞ্চলে বৃষ্টিপাত কম। যার কারণে তাপমাত্রাও অনেক বেশি হয়েছে। এতে করে আম-লিচুসহ বিভিন্ন ফসলের কিছুটা ক্ষয়ক্ষতির সম্ভবনা রয়েছে। বাগান গুলোতে রোগ-বালাই কমাতে সঠিক মাত্রায় স্প্রে করলে পচন ও পোকা-মাকড় থেকে অনেক অংশে রেহাই পাওয়া সম্ভব।”



Source

- Advertisement -spot_img

More articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest article