‘ঠিকাদার দিয়ে রাজনৈতিক দল চলে না’, পিকে-কে বিঁধলেন তৃণমূল বিধায়ক – Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal’s Leading online Newspaper

কোচবিহার: এবার প্রশান্ত কিশোরের টিমকে কটাক্ষ তৃণমূলেরই এক বিধায়কের। পিকে-র আই-প্যাক সংস্থাকে ঠিকাদারি সংস্থা বলে বিঁধলেন কোচবিহারের তৃণমূল বিধায়ক মিহির গোস্বামী। ভোটকুশলী পিকে-র সংস্থাকে বিঁধে মিহিরবাবুর কটাক্ষ, ‘‘রাজনৈতিক দলের সংগঠন চলে নেতা-কর্মীদের সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের উপর ভিত্তি করে। ঠিকাদার দিয়ে রাজনৈতিক দলের সংগঠন চালানো সম্ভব নয়।’’

একুশের বিধানসভা ভোটের আগে ডান-বাম সব রাজনৈতিক দল কোমর-বেঁধে সংগঠন চাঙ্গা করার কাজে নেমে পড়েছে। করোনা আবহেও একাধিক দল ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে রাজনৈতিক কর্মসূচি চালাচ্ছে।

বাম, কংগ্রেস বিজেপির পাশাপাশি বিধানসভা নির্বাচনের আগে সংগঠন মজবুত করতে তৎপর শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। তৃণমূলের সাংগঠনিক শক্তি-বৃদ্ধির বহু দায়িত্বই সামলাচ্ছেন ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোর। তাঁরই সংস্থা আই-প্যাক-এর ছকে দেওয়া কৌশলেই নির্বাচনী লড়াইয়ে রাজ্যের শাসক-শিবির।

এবার প্রশান্ত কিশোরের সংস্থাকেই বিঁধলেন কোচবিহারের তৃণমূল বিধায়ক মিহির গোস্বামী। তিনি বলেন, ‘‘রাজনৈতিক দলের সংগঠন চলে নেতা-কর্মীদের সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের উপর ভিত্তি করে। ঠিকাদার দিয়ে রাজনৈতিক দলের সংগঠন চালানো সম্ভব নয়।’’ চলতি মাসেই দলের সব পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন কোচবিহার দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রের এই বিধায়ক। দলে মিহিরবাবুর স্বচ্ছ ভাবমূর্তি রয়েছে।

চলতি মাসে দলের সব পদ থেকে পদত্যাগ করার সময় তাঁর অভিযোগ ছিল, তাঁকে না জানিয়েই জেলায় দলের বিভিন্ন কমিটি করা হয়। সেই কমিটিতে যাঁরা জায়গা পেয়েছেন তাঁদের অনেকের বিরুদ্ধেই নানা অভিযোগ রয়েছে বলে দাবি তাঁর।

কিন্তু সেসবের তোয়াক্কা না করেই দুর্নীতিতে অভিযুক্তদের দলে জায়গা দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ মিহিরবাবুর। এমনকী তৃণমূলনেত্রী নির্দেশ দিলে তিনি তাঁর বিধায়ক পদ থেকেও সরে দাঁড়াবেন বলে জানিয়েছিলেন।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব ‘দশভূজা’য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।

Leave a Comment

%d bloggers like this: