24 C
Kolkata
Wednesday, May 12, 2021

করোনা রুখতে দেশজুড়ে জারি হোক সম্পূর্ণ লকডাউন, টুইট রাহুলের – Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal’s Leading online Newspaper

Must read

নয়াদিল্লি : দেশে ক্রমশ উদ্বেগ বাড়িয়ে জটিল হচ্ছে করোনা পরিস্থিতি। দিন যত যাচ্ছে ততই বাড়ছে সংক্রমণের দাপট। এই অবস্থায় মারণ ব্যাধির রেশ কমাতে সম্পূর্ণ লকডাউনই একমাত্র পথ বলে দাবি কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর।

এই বিষয়ে মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশ্যে একটি টুইট করে তিনি বলেন, “দেশের বর্তমান করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলার একমাত্র উপায় হল সম্পূর্ণ লকডাউন। কেন্দ্রীয় সরকার কেন এটা বুঝতে পারছে না। নূন্যতম আয় যোজনার মাধ্যমে সরকারের উচিত লকডাউন ঘোষণা করা। করোনা সংক্রমণ ও লকডাউন নিয়ে সরকারের এই নিষ্ক্রিয় মনোভাব বহু নিরীহ মানুষের প্রাণ কেড়ে নিচ্ছে।”

যদিও এর আগে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠকে লকডাউন সম্পর্কে কেন্দ্রের তরফে কোনও ইঙ্গিত দেওয়া হয়নি। জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিতে গিয়েও প্রধানমন্ত্রী কনটেইনমেন্ট জোনের কথা বললেও দেশে সম্পূর্ণ লকডাউন জারি করা হবে কি না সেই বিষয়ে একটি বাক্যও খরচ করেননি তিনি। এছাড়াও অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ জানিয়েছিলেন, দেশে লকডাউন জারি করার কোনও রকম পরিকল্পনা এখনই কেন্দ্রের নেই।

শুধু তাই নয়, দেশে করোনা সংক্রমণের প্রথম ঢেউ যখন আছড়ে পড়েছিল তখন তা রুখতে দফায় দফায় দেশজুড়ে দীর্ঘ মেয়াদি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল। যারফলে গোটাদেশের অর্থনীতির চাকা যেমন বসে যায় তেমনই হাজার হাজার পরিযায়ী শ্রমিকের দূরাবস্থা প্রকাশ্যে আসায় কেন্দ্রের এই অপরিকল্পিত ভাবে লকডাউন জারি করার সিদ্ধান্তকে দোষারোপ করেছিলেন বিরোধীরা। লকডাউনে সমস্ত গণপরিবহণের মাধ্যম বন্ধ হয়ে যাওয়ায় পায়ে হেঁটেই বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন পরিযায়ীরা। গত বছরের সেই বিভৎস দিনগুলির ছবি বার বার ফুটে উঠেছিল সংবাদ মাধ্যমে। তাই ২০২০ সালের ঘটনার পুনরাবৃত্তি যাতে আর না ঘটে তারজন্য সম্পূর্ণ লকডাউনেট বিষয়ে এখনও মুখে কুলুপ এঁটে রয়েছে সরকার।

যদিও ভারতে কয়েক সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা অনেকটা কমিয়ে আনতে পারে করোনা সংক্রমণের রেশ এমনটা দাবি করেছেন মার্কিন স্বাস্থ্যসচিব অ্যান্টনি ফৌসি। গোটাদেশ সহ বিভিন্ন রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে কেন্দ্রের কাছে লকডাউনের পক্ষেই সওয়াল করেছে শীর্ষ আদালত। তবে এই বিষয়ে সরকারী তরফে এখনও কোনও সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করা হয়নি।

লাল-নীল-গেরুয়া…! ‘রঙ’ ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা ‘খাচ্ছে’? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম ‘সংবাদ’!

‘ব্রেকিং’ আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের।

কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে ‘রঙ’ লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে ‘ফেক’ তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই ‘ফ্রি’ নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.



Source

- Advertisement -spot_img

More articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest article