আবারও আদালতে হাজিরা এড়ালেন ছত্রধর, কড়া পদক্ষেপের পথে NIA

নিজস্ব প্রতিবেদন: ব্যাঙ্কশাল কোর্টে আজ ফের ছত্রধর মামলার শুনানি। তবে অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে আজও হাজিরা এড়ালেন তৃণমূল নেতা। অথচ তাঁর আইনজীবীই আদালতের কাছে আজকের তারিখ চান। বারবার পিছোচ্ছে শুননি। জানা গিয়েছে এবার কড়া আইনি পদক্ষেপের পথেই এনআইএ। 

আরও পড়ুন: ব্লক কমিটি গঠন নিয়ে কোন্দল প্রকাশ্যে, মন্ত্রী গৌতম দেবকে ঘিরে বিক্ষোভ তূণমূল কর্মীদের

২০০৯ সালে বাঁশতলায় রাজধানী এক্সপ্রেস আটকানো ও চালক অপহরণ তদন্তে আগেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় ছত্রধরকে। অন্যদিকে  NIA মামলার যৌক্তিকতা নিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থও হয়েছেন সদ্য তৃণমূলের  রাজ্য সম্পাদকের পদ পাওয়া ছত্রধর। এর মাঝেই দু’টি মামলার পুনর্তদন্তের জন্য কলকাতার বিশেষ আদালতে আবেদন জানায় এনআইএ। আদালত আবেদন মঞ্জুর করতেই এনআইএর তদন্ত শুরু হয়।

উল্লেখ্য, এর আগে দু-দুবার ছত্রধর মাহাতোকে জেরা করেছে NIA। ২৫ ও ২৬ অগাস্ট তাঁকে জেরা করে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। প্রসঙ্গত, এক দশকের বেশি পুরনো বেশ কতগুলি মামলায় ছত্রধর মাহাতর নাম রয়েছে। সেগুলি নিয়েই ফের ছত্রধর মাহাতোকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে NIA। ২০০৯-এর ১৪ জুন লালগড়ের ধরমপুরে সিপিআইএম নেতা প্রবীর মাহাতো খুন হন। সেই খুনের ঘটনায় ছত্রধর মাহাতকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। এরপর ওই বছরই রাজধানী ছিনতাইয়ের চেষ্টা হয়। ২০০৯-এর শেষেরদিকে দিল্লি-ভুবনেশ্বর রাজধানী হাইজ্যাকের ঘটনাতেও ছত্রধর মাহাতোর নাম উঠে আসে।

এ ছাড়া পিপলস কমিটি এগেইনস্ট পোলিস অ্যাট্রোসিটিস-এর সক্রিয় সদস্যও ছিলেন ছত্রধর মাহাতো। এই সব নিয়েই ফের তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে NIA সূত্রে খবর। এ প্রসঙ্গে বলে রাখি, জঙ্গলমহলের একদা নায়ক ছত্রধর মাহাতো দীর্ঘ কারাবাস কাটিয়ে ফেরার পরই ফের সক্রিয়ে রাজনীতিতে প্রবেশ করেছেন। সরাসরি তৃণমূলের রাজ্য কমিটিতে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি।

Leave a Comment

%d bloggers like this: